elektronik sigara

ইনশাআল্লাহ জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসায় দাওয়াতুল হকের মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২১শে রবীউস সানী, ১৪৪৪ হিজরী, ১৮ই নভেম্বর, ২০২২ ঈসা‘য়ী, শুক্রবার (সকাল ৭-৮টা থেকে শুরু হবে ইনশাআল্লাহ)

ইনশাআল্লাহ জামি‘আ ইসলামিয়া দারুল উলুম মাদানিয়া যাত্রাবাড়ী মাদরাসায় বার্ষিক দাওয়াতুল হকের মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে আগামী  ৫ই নভেম্বর, ২০২২ ঈসায়ী, শনিবার।

জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসা থেকে প্রকাশিত একাডেমিক ক্যালেন্ডার পেতে ক্লিক করুন

হযরতওয়ালা দা.বা. কর্তৃক সংকলিত চিরস্থায়ী ক্যালেন্ডার ডাউনলোড করতে চাইলে এ্যাপের “সর্বশেষ সংবাদ” এ ভিজিট করুন।

জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসার বার্ষিক মাহফিল, জামি‘আ রাহমানিয়া মাদরাসা সাত মসজিদ প্রাঙ্গন মুহাম্মাদপুরে অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৯শে অক্টোবর, ২০২২ শনিবার (বাদ থেকে শুরু হবে ইনশাআল্লাহ)

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা এর লিখিত সকল কিতাব পাওয়ার জন্য এ্যাপের “সর্বশেষ সংবাদ” থেকে তথ্য সংগ্রহ করুন।

হযরতওয়ালা দা.বা. এর কিতাব অনলাইনের মাধ্যমে কিনতে চাইলে ভিজিট করুনঃ www.maktabatunnoor.com

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা. এর নিজস্ব ওয়েব সাইট www.darsemansoor.com এ ভিজিট করুন।

গায়রে মাহরামের সাথে হজ্জের সফর করা

তারিখ : ১৪ - ফেব্রুয়ারী - ২০১৮  

জিজ্ঞাসাঃ

একজন পুরুষ হজ্জ করবে এবং তার সাথে তার বিবিও হজ্জ করতে যাবে। তাদের দুই জনের সাথে বিবির খালাতো বোন হজ্জ করতে যাবে। বাংলাদেশ হতে সৌদি পর্যন্ত তাদের সাথে যাবে। পরে খালাতো বোন সহোদর ভাইয়ের সাথে হজ্জ করবে, এখন বাংলাদেশ হতে সৌদি পর্যন্ত খালাতো বোন এবং খালাতো বোনের স্বামীর সাথে হজ্জ করার জন্য যেতে পারবে কি-না? ঐ মহিলাটির ভাই সৌদিতে চাকুরি করে।


জবাবঃ


বর্ণিত সুরতে উক্ত মহিলার জন্য তার খালাত বোন বা বোনের স্বামীর সাথে হজ্জে যাওয়া জায়িয হবে না। কারণ মহিলাদের হজ্জ ফরয হওয়া এবং তা আদায় করার জন্য শর্তহল- সফরসঙ্গী হিসেবে তার সাথে তার স্বামী বা দ্বীনদার মাহরাম থাকা। মাহরাম বলে ঐ সমস্ত পুরুষকে যাদের সঙ্গে মহিলার স্থায়ীভাবে বিবাহ হারাম। চাই বংশের কারণে হোক, বা বিবাহের কারণে হোক, বা দুধের সম্পর্কের কারণে হোক। যেমন-পিতা, ভাই , দাদা ও আপন শ্বশুর ইত্যাদি। খালাত বোনের স্বামী যেহেতু মাহরামের মধ্যে নয়, তাই তার সঙ্গে উক্ত মহিলার হজ্জে যাওয়া যদিও জিদ্দা পর্যন্ত হোক জায়িয হবে না। আর মহিলার সঙ্গী যতই ঘনিষ্ঠ হোক তা গ্রহণযোগ্য নয়। সুতরাং উক্ত মহিলার উপর এই মুহূর্তে হজ্জের টাকা থাকা সত্ত্বেও হজ্জে যাওয়া ফরয নয়। যতদিন পর্যন্ত বৈধ সফর সঙ্গী না পাবে, ততদিন তার জন্য হজ্জে যাওয়া ফরয হবে না। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত যদি মাহরাম সফর সঙ্গী না পাওয়া যায় এবং মৃত্যুর সময় তার উপর হজ্জ ফরয থাকে তাহলে বদলী হজ্জের ওসীয়্যত করে যাবে।


(প্রমাণঃ হিদায়া ১:২৩৩# ফাতাওয়া আলমগীরী ১:২১৯# ফাতাওয়া শামী ২:৪৬৫-৪৬৪)