elektronik sigara

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা. এর সমস্ত কিতাব, বয়ান, প্রবন্ধ, মালফুযাত পেতে   ইসলামী যিন্দেগী  App টি সংগ্রহ করুন।

প্রতিদিন আমল করার জন্য “দৈনন্দিন আমল ও দু‘আসমূহ” নামক একটি গুরত্বপূর্ণ কিতাব আপলোড করা হয়েছে।

ইনশাআল্লাহ জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসায় দাওয়াতুল হকের মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২০ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ঈসায়ী।

সুখবর! সুখবর!! সুখবর!!! হযরতওয়ালা দা.বা. এর গুরত্বপূর্ণ ২ টি নতুন কিতাব বেরিয়েছে। “নবীজীর (সা.) নামায” এবং “খ্রিষ্টধর্ম কিছু জিজ্ঞাসা ও পর্যালোচনা”।  আজই সংগ্রহ করুন।

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা. এর নিজস্ব ওয়েব সাইট www.darsemansoor.com এ ভিজিট করুন।

প্রস্রাবের ছিটা সম্পর্কে

তারিখ : ১৪ - ফেব্রুয়ারী - ২০১৮  

জিজ্ঞাসাঃ

অনেক সময় দেখা যায় যে, পেশাব করার সময় পেশাবের ছিটা লুঙ্গি অথবা পাজামায় লেগে যায় তখন নামাযের জন্য কাপড় পাল্টাতে হলে বাড়ীতে যেতে হয় । এতে জামা‘আত ছুটে যায় । আর জামা‘আত ধরতে গেলে পেশাবের ছিটা সহ নামায পড়তে হয় । এমতাবস্থায় করণীয় কি ?

অনেক মুরুব্বিদের মুখে শুনি এমতাবস্থায় কাপড়ের মাথা থেকে চার আঙ্গুল পরিমাণ তিনবার ধুয়ে নিলে পাক হয়ে যায় । এটা শরী‘আত সম্মত কিনা জানাবেন ।


জবাবঃ  


পেশাব করার জন্য তৈরীকৃত নির্ধারিত স্থান তথা বা ঢালু স্থান ব্যতীত অন্যত্র যথা অসমতল ভুমিতে পেশাব করার প্রয়োজন দেখা দিলে তার জন্য সুন্নাত তরিকা হচ্ছে, এমন স্থানে পেশাব করা যাতে পেশাবের ছিটা কাপড়ে বা শরীরে না লাগে । সুতরাং শক্ত জায়গা, পাথর বা বাতাসের বিপরীতে পেশাব করা সুন্নাতের খেলাফ । যদি পেশাবের ছিটা কাপড়ে লাগে আর তা যদি সূঁচের মাথার ন্যায় ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র হয় তাহলে তা মাফ এবং কোন সমস্যা ছাড়াই নামায সহীহ হয়ে যাবে । আর যদি বেশী হয়ে আয়তনে অনুর্ধ্ব এক দিরহাম (হাতের তালুর মাঝের নিচু অংশ) পরিমাণ হয়ে যায় তাহলে ধুয়ে নেয়া ওয়াজিব । না ধুয়ে নামায পড়লে মাকরূহে তাহরীমীর সহিত নামায হয়ে যাবে, অবশ্য উক্ত নামায দ্বিতীয় বার দোহরায়ে পড়তে হবে । আর যদি এক দিরহামের চেয়ে বেশী হয় বা বিভিন্ন জায়গায় ছিটা লাগে কিন্তু সবগুলো মিলে আয়তনে এক দিরহামের চেয়ে বেশী হয়ে যায়, তাহলে না ধুলে নামায হবে না । বরং উক্ত কাপড়ে নামায পড়তে হলে নাপাকী দূর করার জন্য তা ধুয়ে নেয়া ফরজ । তবে যদি কেউ কাপড়ের পেশাব লাগার স্থানটি ভুলে যায়, সুনির্ধারিত ভাবে বুঝতে না পারে যে, কাপড়ের কোন অংশে পেশাব লেগেছে, তাহলে চিন্তা-ফিকির করে একটি জায়গা নির্ধারণ করে ঐ জায়গাটি ধুয়ে নিবে । এভাবেও উক্ত কাপড় পাক হয়ে যাবে । কিন্তু যদি তার নিকট পরবর্তীতে স্পষ্ট হয়ে যায় যে, পেশাব অন্য জায়গায় লেগেছে, তাহলে ঐ কাপড় পরিধান করে যে কয় ওয়াক্ত নামায পড়েছে তা আবার দোহরায়ে নিতে হবে ।[ফাতাওয়া আলমগীরী, ১ : ৫০, ৪৩, আদ্দুররুল মুখতার ১ : ৩১২, ৩১৬, ফাতাওয়া দারুল উলুম ১ : ২৮৩]


وعفي......البول انتضح كرؤوس إبر وكذا جانبها الاخر وان كثر باصابة الماء للضرورة. (الدر المختار:1/312)


وعفا الشارع عن قدر درهم وان كره تحريما فيجب غسله وما دونه تنزيها فيسن وفوقه مبطل فيفرض.  (الدر المختار:1/316)