elektronik sigara

ইনশাআল্লাহ জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসায় দাওয়াতুল হকের মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২১শে রবীউস সানী, ১৪৪৪ হিজরী, ১৮ই নভেম্বর, ২০২২ ঈসা‘য়ী, শুক্রবার (সকাল ৭-৮টা থেকে শুরু হবে ইনশাআল্লাহ)

ইনশাআল্লাহ জামি‘আ ইসলামিয়া দারুল উলুম মাদানিয়া যাত্রাবাড়ী মাদরাসায় বার্ষিক দাওয়াতুল হকের মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে আগামী  ৫ই নভেম্বর, ২০২২ ঈসায়ী, শনিবার।

জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসা থেকে প্রকাশিত একাডেমিক ক্যালেন্ডার পেতে ক্লিক করুন

হযরতওয়ালা দা.বা. কর্তৃক সংকলিত চিরস্থায়ী ক্যালেন্ডার ডাউনলোড করতে চাইলে এ্যাপের “সর্বশেষ সংবাদ” এ ভিজিট করুন।

জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসার বার্ষিক মাহফিল, জামি‘আ রাহমানিয়া মাদরাসা সাত মসজিদ প্রাঙ্গন মুহাম্মাদপুরে অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৯শে অক্টোবর, ২০২২ শনিবার (বাদ থেকে শুরু হবে ইনশাআল্লাহ)

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা এর লিখিত সকল কিতাব পাওয়ার জন্য এ্যাপের “সর্বশেষ সংবাদ” থেকে তথ্য সংগ্রহ করুন।

হযরতওয়ালা দা.বা. এর কিতাব অনলাইনের মাধ্যমে কিনতে চাইলে ভিজিট করুনঃ www.maktabatunnoor.com

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা. এর নিজস্ব ওয়েব সাইট www.darsemansoor.com এ ভিজিট করুন।

পুরুষদের জন্য স্বর্ণ-রূপার অলঙ্কার পরিধান করে নামায আদায়

তারিখ : ১৪ - ফেব্রুয়ারী - ২০১৮  

জিজ্ঞাসাঃ

স্বর্ণালঙ্কার মহিলাদের পোষাকতুল্য। কিন্তু বর্তমানে দেখা যায় অনেক পুরুষ স্বর্ণের চেইন, স্বর্ণের আংটি, রূপার চেইন ইত্যাদি পরিধান করে থাকে। আবার অনেকে এগুলো পরে নামাযও আদায় করে থাকে, সুতরাং প্রশ্ন হচ্ছে, এসব অলঙ্কারাদি পরিহিত অবস্থায় নামায আদায় করলে নামায সহীহ হবে কি?


জবাবঃ


স্বর্ণ বা রূপার চেইন, আংটি বা অন্য যে কোন অলঙ্কার পরিধান করা পুরুষের জন্য সম্পূর্ণ হারাম ও কবীরা গুণাহ্। এরূপ হারাম বস্তু অথবা অন্য কোন হারাম পোষাক পরিধান করে নামায আদায় করা আরো মারাত্মক অপরাধ ও গুণাহ্। এ অবস্থায় নামায আদায় করলে যদিও তা আদায় হবে, কিন্তু উক্ত কবীরা গুণাহে্ লিপ্ত থেকে নামায আদায়ের দরুন তা মাকরূহে তাহরীমী হবে। মাসআলা না জেনে এগুলো পড়ে থাকলে মাসআলা জানার পর অবশ্যই এগুলো খুলে ফেলা জরুরী এবং নামাযে তা পরে থাকা নিষেধ। তাই নামাযের সময় অবশ্যই এগুলো খুলে পকেটে রাখতে হবে। এগুলো পরে থাকা অবস্থায় নামায পড়লে মাকরূহ তাহরীমী হবে ও মারাত্মক গুনাহ্ হবে। পুরুষরা এসব অলঙ্কার নামাযে তো পরবেই না এমনকি নামাযের বাইরেও পরবে না।


[প্রমাণঃ তিরমিযী শরীফ, ১:৩০২ # ফাতাওয়া শামী, ১:৪০৪ # ফাতাওয়ায়ে দারুল উলূম, ৪:১৩৪ # আহসানুল ফাতাওয়া, ৩:৪১৩]