elektronik sigara

সুখবর! সুখবর!! সুখবর!!! হযরতওয়ালা দা.বা. এর গুরত্বপূর্ণ ২ টি নতুন কিতাব বেড়িয়েছে। “নবীজীর (সা.) নামায” এবং “খ্রিষ্টধর্ম কিছু জিজ্ঞাসা ও পর্যালোচনা”।  আজই সংগ্রহ করুন।

হযরতওয়ালা দা.বা. এর কিতাব অনলাইনের মাধ্যমে কিনতে চাইলে ভিজিট করুনঃ www.maktabatunnoor.com

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক দা.বা. এর সমস্ত কিতাব, বয়ান, প্রবন্ধ, মালফুযাত পেতে   ইসলামী যিন্দেগী  App টি সংগ্রহ করুন।

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক দা.বা. এর নিজস্ব ওয়েব সাইট www.darsemansoor.com এ ভিজিট করুন।

দাঁড়িবিহীন ব্যক্তির ইমামতী

তারিখ : ১৪ - ফেব্রুয়ারী - ২০১৮  

জিজ্ঞাসাঃ

আমি একজন কলেজের প্রভাষক। আমি মধুর সুরে এবং তাজবীদের সঙ্গে কুরআন শরীফ পড়তে পারি। কুরআন-হাদীস সম্পর্কে মোটামুটি জ্ঞান আছে। কিন্তু আমি দাঁড়ি রাখি না। গ্রামের বাড়ীতে গেলে সবাই আমাকে পাঞ্জেগানা নামায পড়াতে বলে। মুক্তদীদের অনুরোধক্রমে আমি নামায পড়াই। এমতাবস্থায় আমার ইমামতী শুদ্ধ হবে কি-না ?

 


জবাবঃ


শরী‘আতের দৃষ্টিতে দাঁড়ি রাখা ওয়াজিব। এক মুষ্ঠির কমে দাঁড়ি মুন্ডানো, কাট-ছাট করা হারাম। এটা একটা দীর্ঘস্থায়ী কবীরা গুনাহ। যদি কোন ব্যক্তি দাঁড়ি কেটে-ছেটে কিংবা মুন্ডিয়ে এক মুষ্ঠির কম রাখে, তাহলে সে ফাসিক বলে গণ্য হবে। আর ফাসিকের ইমামতী করা মাকরূহে তাহরীমী এবং তার পিছনে নামায পড়াও মাকরূহে তাহরীমী।


সুতরাং সহীহ শুদ্ধ কিরাআত পড়তে পারে এমন দাঁড়িওয়ালা লোকের বর্তমানে আপনি ইমামতী করতে পারবেন না। বরং ঐ ব্যক্তিকেই ইমামতী করতে দিবেন। তবে যদি সেখানে শুদ্ধ কিরাআত পড়নেওয়ালা কেউ না থাকে, তাহলে প্রয়োজনের ক্ষেত্রে সেখানে আপনি ইমামতী করতে পারেন। তবে দাঁড়ি না রাখার গুনাহ হতেই থাকবে।


[প্রমাণ: আদদুররুল মুখতার ১ : ৫৬০, # ইমদাদুল মুফতীন ৩২১, # আযীযুল ফাতাওয়া ১৪৫, # খুলাসাতুল ফাতাওয়া ১ : ১৪৫]