elektronik sigara

ইনশাআল্লাহ জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসায় দাওয়াতুল হকের মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১২ই জুমাদাল উলা, ১৪৪৩ হিজরী, ১৭ই ডিসেম্বর, ২০২১ ঈসা‘য়ী, শুক্রবার।

জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসা থেকে প্রকাশিত একাডেমিক ক্যালেন্ডার পেতে ক্লিক করুন

হযরতওয়ালা দা.বা. কর্তৃক সংকলিত চিরস্থায়ী ক্যালেন্ডার ডাউনলোড করতে চাইলে এ্যাপের “সর্বশেষ সংবাদ” এ ভিজিট করুন।

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা এর লিখিত সকল কিতাব পাওয়ার জন্য এ্যাপের “সর্বশেষ সংবাদ” থেকে তথ্য সংগ্রহ করুন।

হযরতওয়ালা দা.বা. এর কিতাব অনলাইনের মাধ্যমে কিনতে চাইলে ভিজিট করুনঃ www.maktabatunnoor.com

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা. এর নিজস্ব ওয়েব সাইট www.darsemansoor.com এ ভিজিট করুন।

ঘরে তারাবীহের জামা‘আতে মহিলাদের অংশগ্রহন

তারিখ : ১৪ - ফেব্রুয়ারী - ২০১৮  

জিজ্ঞাসাঃ

জনৈক ব্যক্তি রমাযান মাসে মসজিদে ইশার নামায জামায়াতের সাথে পড়ে বাড়ীতে এসে খতম তারাবী পড়ায়। এটা কি তার জন্য ঠিক হবে। অনেক মাহরাম-গাইরে মাহরাম মহিলারাও উক্ত খতম তারাবীতে তার পিছে ইক্বতিদা করে। এখন প্রশ্ন হল উক্ত তারাবীতে মহিলাদের অংশগ্রহন করা এবং হাফেজ সাহেবের পিছনে ইকতিদা করা সহীহ হবে কি?


জবাবঃ


মসজিদে ইশার নামায জামা‘আতের সাথে পড়ে বাড়িতে এসে তারাবীহের জামা‘আত করতে কোন অসুবিধা নেই। বরং যে সব হাফেযদের তারাবীহ নামাযে ইমামতির সুযোগ না হয় তাদের এরুপ করা চাই। এতে তাদের তারাবীহের সাওয়াব কম হবে না। আর মহিলাদের তারাবীহ এর জামা‘আতে অংশগ্রহনের জন্য নিজ ঘরোয়া পরিবেশ ছেড়ে অন্যত্র যাওয়া নাজায়িয ও মাকরূহ। অবশ্য নিজ ঘরোয়া পরিবেশে তারাবীহের জামা‘আতে অংশগ্রহন করা নিম্মবর্ণিত সুরতগুলোতে জায়িয আছে।


পুরুষ ইমামের পিছে যদি অন্য পুরুষ মুক্তাদি থাকে তাহলে ইমাম সাহেবের মাহরাম, গাইরে মাহরাম অথবা শুধু গাইরে মাহরাম সব মহিলাদের ইক্তিদা শহীহ হবে। অবশ্য মহিলাদের কাতার পুরুষদের কাতারের পিছনে হবে এবং গাইরে মাহরাম মহিলারা পর্দার আড়াল থেকে ইক্তিদা করবে।


যদি ইমাম সাহেবের পিছে কোন পুরুষ মুক্তাদি না থাকে এবং মহিলাদের মাঝে ইমাম সাহেবের মাহরাম মহিলাও থাকে, তাহলে তার পিছে গাইরে মাহরাম পর্দার আড়াল থেকে ইক্তিদা করতে পারবে। পক্ষান্তরে যদি ইমাম সাহেবের পিছে কোন পুরুষ বা তার কোন মাহরাম মহিলা জামা’য়াতে অংশগ্রহন না করে তাহলে সেক্ষেত্রে শুধু গাইরে মাহরাম মহিলার ইক্তিদা উক্ত ইমাম সাহেবের পিছে সহীহ হবে না বরং মাকরূহ হবে। উল্লেখ্য, মহিলাদের জন্য সর্বাবস্থায় অন্দর মহলে একাকী নামায পড়াই উওম এবং বেশী সাওয়াবের কাজ। (প্রমাণঃ ফাতাওয়ায়েশামী, ১:৫৬৫ # আবুদাঊদ১:৮৪ # ফাতাওয়ায়েদারুলউলুম, ৪:২৫০)


عَنْ عَبْدِ اللَّهِ عَنِ النَّبِىِّ -صلى الله عليه وسلم- قَالَ « صَلاَةُ الْمَرْأَةِ فِى بَيْتِهَا أَفْضَلُ مِنْ صَلاَتِهَا فِى حُجْرَتِهَا وَصَلاَتُهَا فِى مَخْدَعِهَا أَفْضَلُ مِنْ صَلاَتِهَا فِى بَيْتِهَا ».  (سنن أبي داود حـ:570)