elektronik sigara

আগামী ইজতেমা ২০শে জুমাদাল উখরা, ১৪৪৪ হিজরী ‍মুতাবেক ১৩ই জানুয়ারী, ২০২৩ ঈসায়ী তারিখ শুক্রবার থেকে ২২শে জুমাদাল উখরা, ১৪৪৪ হিজরী মুতাবেক ১৫ই জানুয়ারী, ২০২৩ ঈসায়ী তারিখ রবিবার পর্যন্ত চলবে। অর্থাৎ ১৩,১৪,১৫ জানুয়ারী, ২০২৩। ইজতেমার ময়দানের ম্যাপ ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন

 

ইনশাআল্লাহ জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসায় দাওয়াতুল হকের মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৬শে জুমাদাল উখরা, ১৪৪৪ হিজরী, ২০ই জানুয়ারী, ২০২৩ ঈসা‘য়ী, শুক্রবার (সকাল ৭-৮টা থেকে শুরু হবে ইনশাআল্লাহ)

হযরতওয়ালা দা.বা. কর্তৃক সংকলিত চিরস্থায়ী ক্যালেন্ডার ডাউনলোড করতে চাইলে এ্যাপের “সর্বশেষ সংবাদ” এ ভিজিট করুন।

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা এর লিখিত সকল কিতাব পাওয়ার জন্য এ্যাপের “সর্বশেষ সংবাদ” থেকে তথ্য সংগ্রহ করুন।

হযরতওয়ালা দা.বা. এর কিতাব অনলাইনের মাধ্যমে কিনতে চাইলে ভিজিট করুনঃ www.maktabatunnoor.com

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা. এর নিজস্ব ওয়েব সাইট www.darsemansoor.com এ ভিজিট করুন।

ওয়াক্তিয়া নামাযের পূর্বে জানাযার নামায পড়া

তারিখ : ১৪ - ফেব্রুয়ারী - ২০১৮  

জিজ্ঞাসাঃ

ওয়াক্তিয়া নামাযের সময় হওয়ার পর জানাযার নামায ওয়াক্তিয়া নামাযের পূর্বে পড়া ঠিক হবে কি-না? আর জানাযার নামাযের পর সকল মুসল্লীগণকে নিয়ে ইমাম সাহেব দু‘আ করতে পারেন কি-না?


জবাবঃ


ফরয নামাযের আগেও জানাযার নামায পড়া জায়িয আছে। তাবে উত্তম হল যদি ওয়াক্তিয়া নামাযের সময় হয়ে যায় এবং জানাযাও উপস্থিত হয়, তখন প্রথমে ওয়াক্তিয়া ফরয-সুন্নাত পড়ার পর জানাযার নামায আদায় করবে। তবে ওয়াক্তিয়া নামাযের খুব বেশী পূর্বে জানাযা আসলে, সেক্ষেত্রে বিলম্ব করা অনুচিত। (প্রমাণঃ ইমদাদুল ফাতাওয়া ১:৭৩৬)


উল্লেখ থাকে যে, জানাযার নামাযই প্রকৃত দু‘আ। সুতরাং, জানাযার নামাযের পর একত্রে হয়ে দু’হাত উঠিয়ে দু‘আ করার আবশ্যকতা নেই এবং শরী‘আতেও এরুপ কোন নিয়ম নেই। তাই এ অবস্থায় হাত তুলে সম্মিলিত দু‘আ করা বিদ‘আত হবে।


তবে প্রত্যেকে একা হাত উঠানো ব্যতীত দু‘আ করতে পারে। বরং তা সাওয়াবের কাজ। (প্রমাণঃ হাশিয়া মিশকাত ১:১৪৭# খাইরুল ফাতাওয়া ৫৮৮# ইমদাদুল মুফতীন ৪৪৪)