elektronik sigara

প্রতিদিন আমল করার জন্য “দৈনন্দিন আমল ও দু‘আসমূহ” নামক একটি গুরত্বপূর্ণ কিতাব আপলোড করা হয়েছে।

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা এর সৌদি আরবের নাম্বার 05 77 58 56 34

ইনশাআল্লাহ জামি‘আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসায় দাওয়াতুল হকের মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৩ শে আগষ্ট, ২০১৯ ঈসায়ী।

সুখবর! সুখবর!! সুখবর!!! হযরতওয়ালা দা.বা. এর গুরত্বপূর্ণ ২ টি নতুন কিতাব বেড়িয়েছে। “নবীজীর (সা.) নামায” এবং “খ্রিষ্টধর্ম কিছু জিজ্ঞাসা ও পর্যালোচনা”।  আজই সংগ্রহ করুন।

হাজী সাহেবানদের জন্য এক নজরে হজের ৭ দিনের করণীয় ডাউনলোড করুন

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা. এর সমস্ত কিতাব, বয়ান, প্রবন্ধ, মালফুযাত পেতে   ইসলামী যিন্দেগী  App টি সংগ্রহ করুন।

হযরতওয়ালা মুফতী মনসূরুল হক সাহেব দা.বা. এর নিজস্ব ওয়েব সাইট www.darsemansoor.com এ ভিজিট করুন।

ঈদের নামাযে শেষ রাকা‘আতের রুকুতে শরিক

তারিখ : ১৪ - ফেব্রুয়ারী - ২০১৮  

জিজ্ঞাসাঃ

কোন ব্যক্তি যদি ঈদের নামাযে শেষ রাকা‘আতের রুকুতে শরিক হয়, সে ৬ তাকবীর পাইনি, এখন তার করনীয় কি? ঈদের নামাযের শেষ বৈঠক পাইলো এখন কি করনীয়? জানালে খুশি হব।


জবাবঃ

যে ব্যক্তি ঈদের নামাযে দ্বিতীয় রাকাআতে ইমাম সাহেবকে রুকুতে পেল সে তাকবীরে তাহরীমার পর অতিরিক্ত তাকবীর বলে রুকুতে শরিক হবে। আর যদি ইমাম সাহেব রুকু থেকে উঠে আসার প্রবল ধারনা হয় তাহলে রুকুতে চলে যাবে এবং রুকুর তাসবীহের পরিবর্তে হাত উঠানো ছাড়া অতিরিক্ত তাকবীর বলবে। যদি তার তাকবীর শেষ হওয়ার আগে ইমাম সাহেব রুকু থেকে উঠে আসে তাহলে বাকি তাকবীরগুলো সাকেত হয়ে যাবে। আর যে ব্যক্তি ঈদের নামাযের শেষ বৈঠক পেল সে ইমাম সাহেব যেভাবে নামায পড়িয়েছেন ঠিক সেভাবেই নিজের নামায পড়ে নিবে।  অর্থাৎ প্রথম রাকাআতে ছানার পর হাত উঠানোসহ তিন তাকবীর বলবে, আর দ্বিতীয় রাকাআতে কিরাআত শেষে রুকুতে যাওয়ার পূর্বে অতিরিক্ত তিন তাকবীর বলবে। (ফাতাওয়ায়ে শামী ১/১৭৩, হাশিয়াতুত তহত্বায়ী আলা মারাকিল ফালাহ পৃ:৫৩৪, আহসানুল ফাতাওয়া ৪/১৪৩)